Barisal Report .Com । বরিশাল রিপোর্ট .কম

ঢাকা, ২০শে জুন, ২০১৯ ইং


প্রকাশ : এপ্রিল ১, ২০১৯ , ৬:২১ অপরাহ্ণ
‘খালেদা জিয়ার খাওয়ায় অরুচি, ঘুম কম’

অনলাইন ডেস্ক // বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণ করেছেন তার চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ডের সদস্যরা। এরপর তার স্বাস্থ্যের অবস্থা নিয়ে ব্রিফ করা হয়।

সোমবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. এ কে মাহবুবুল হক খালেদা জিয়ার শারিরীক অবস্থা নিয়ে ব্রিফিং দেন।

এতে তিনি জানান, খালেদা জিয়ার পায়ে ব্যথা, যেটি জয়েন্টে ব্যথা। এছাড়া উনি দুর্বল আছেন, খাওয়ায় অরুচি আছে। তার ঘুমও কম হচ্ছে। এছাড়া তেমন কোনো জটিলতা নেই।

মাহবুবুল হক বলেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ডের সদস্যরা তার সঙ্গে দেখা করেছেন। খালেদা জিয়ার কাছে রোগের বিস্তারিত শুনেছেন। তারা সেগুলো অ্যানালাইসিস করে খালেদা জিয়ার সঙ্গে আলাপ করে চিকিৎসাপত্র দিয়েছে। তার ডায়াবেটিস আগেই ছিল। এটি বেড়েছে। আজকে র‌্যানডম ১৪ এসেছে।

তিনি বলেন, এছাড়া খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় একজন চিকিৎসক প্রতিদিন নিয়োজিত থাকবেন। তিনি খালেদা জিয়ার চিকিৎসার খোঁজখবর নেওয়ার পাশাপাশি তার অগ্রগতি সম্পর্কে প্রতিবেদন দেবেন।

এ সময় মাহবুবুল হক আরও বলেন, খালেদা জিয়া মেডিকেল বোর্ড সদস্যদের সামনে বসে কথা বলেছেন। স্বাচ্ছন্দ্যভাবে কথা বলেছেন। মেডিকেল বোর্ডের কাছ থেকে সুন্দরভাবে চিকিৎসাপত্র নিয়েছেন।

খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ডের প্রধান হিসেবে রয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) মেডিসিন বিভাগের প্রধান জিলন মিয়া সরকার। বোর্ডের সদস্য রিউমেটোলজি বিভাগের অধ্যাপক সৈয়দ আতিকুল ইসলাম, বিএসএমএমইউ পরিচালক (হাসপাতাল) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. এবিএম মাহাবুবুল আলম,অতিরিক্ত পরিচালক (হাসপাতাল) নাজমুল করিম এবং রিউমেটোলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক শামিম আহমেদ তার সঙ্গে ছিলেন।

বিএসএমএমইউতে চিকিৎসা নিতে সম্মতির কথা সোমবার সকালে কারা কর্তৃপক্ষকে জানান খালেদা জিয়া। সকালে কারা কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল, আজ যেকোনো সময় তাকে কারাগার থেকে হাসপাতালে নেয়া হতে পারে।

এর আগে গত মাসের শুরুর দিকেও খালেদা জিয়াকে একবার বিএসএমএমইউতে নেয়ার কথা ছিল। তখন হাসপাতালের কেবিনও ঠিক করা হয়েছিল। হাসপাতাল ঘিরে বাড়তি নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছিল। শেষ পর্যন্ত খালেদা জিয়া রাজি না হওয়ায় তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়নি।

প্রসঙ্গত দুর্নীতির দুই মামলায় ১৭ বছর দণ্ডিত হয়ে গত বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাবন্দি সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া। কারাবন্দি খালেদা জিয়া গুরুতর অসুস্থ বলে বিএনপির পক্ষ থেকে দাবি করা হচ্ছে। তারা খালেদা জিয়াকে বিএসএমএমইউয়ে চিকিৎসা দেয়ার বিষয়ে আগ্রহী নয়। বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসার দাবি জানিয়ে আসছে বিএনপি। তবে সরকার ও ক্ষমতাসীন দল তাকে বিএসএমএমইউতে চিকিৎসা দেয়ার বিষয়ে বারবার বলে আসছে।

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত
[tabs]