Barisal Report .Com । বরিশাল রিপোর্ট .কম

ঢাকা, ২১শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং


প্রকাশ : এপ্রিল ১২, ২০১৯ , ৮:২০ অপরাহ্ণ
দুর্গাসাগরে শুরু হয়েছে স্নানোৎসব

বরিশাল  রিপোর্ট॥ জেলার বাবুগঞ্জ উপজেলার মাধবপাশার ঐতিহ্যবাহী দুর্গাসাগরে শুরু হয়েছে স্নানোৎসব। হিন্দু সস্প্রদায়ের অন্যতম এ উৎসবে যোগ দিতে শুক্রবার দেশের বিভিন্নস্থান থেকে হাজারো পুণ্যার্থী এসেছেন। সকাল থেকে পুণ্যার্থীদের পদচারণায় মুখর হয়ে উঠেছে মাধবপাশার দুর্গাসাগর পাড়ের এলাকা।
চৈত্র মাসের অষ্টমী তিথিতে দুর্গাসাগরে স্নান করে পাপ থেকে মুক্তি লাভের আশায় প্রতিবছর বিভিন্নস্থান থেকে সনাতন ধর্মাবলম্বীরা আসেন। পুণ্যার্থীরা গঙ্গাদেবীর চরণে আত্মসমর্পণ করে পূজার্চনা, প্রার্থনাসহ নানা আয়োজনের মধ্যদিয়ে পাপমুক্তির বাসনায় স্নান সমাপ্ত করেন। এবারের তিথি দু’দিন হওয়ায় ভক্তরা শান্তিপূর্ণভাবে স্নান করতে পারছেন। শুক্রবার বেলা ১১টা দুই মিনিট থেকে আজ শনিবার সকাল নয়টা ৫৯মিনিট পর্যন্ত তিথি রয়েছে।
পূর্নার্থীরা জানান, তারা গঙ্গাদেবীর উদ্দেশ্যে ফুল ভাসিয়ে প্রার্থনা করছেন। যাতে পাপমুক্তির মধ্যদিয়ে সুখে-শান্তিতে বসবাস এবং সকল দুঃখ-কষ্ট থেকে যেন মুক্তি পান। উৎসবে বাড়তি আনন্দ যোগাতে সাগর পাড়ের বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে আয়োজন করা হয়েছে প্রামীণ মেলার। যেখানে মুড়ি-মুড়কি থেকে শুরু করে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রও পাওয়া যাচ্ছে। এদিকে উৎসবকে ঘিরে এলাকাজুড়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কঠোর নিরাপত্তা বলয় সৃষ্টি করা হয়েছে।
সূত্রমতে, ১৭৮০ খ্রিস্টাব্দে চন্দ্রদীপ পরগণার তৎকালীন রাজা শিব নারায়ণ এলাকাবাসীর পানির সংকট নিরসনে স্ত্রী দুর্গারানীর নামানুসারে দুর্গাসাগর দীঘি খনন করেন। যা পরবর্তীতে ১৯৭৪ সালে দ্বিতীয়বারের মতো খনন করা হয়। ৪৫ দশমিক ৫৫ একর জমির মধ্যে দ্বীপসহ জলভাগের পরিমাণ ২৭ দশমিক ৩৮ একর এবং স্থলভাগের পরিমাণ ১৮ দশমিক চার একর। দীঘির চারপাশে ও মাঝের দ্বীপটিতে বিভিন্ন প্রজাতির ফলজ, ওষধি ও বনজ বৃক্ষ রয়েছে। এছাড়া দীঘির চারপাশ দিয়ে এক দশমিক ছয় কিলোমিটার ওয়াকওয়ে রয়েছে। তিনঘাট ও মধ্যখানে দ্বীপবিশিষ্ট এ দীঘি সর্বশেষ ১৯৯৭ থেকে ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত সংস্কার করা হয়।

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত
[tabs]