Barisal Report .Com । বরিশাল রিপোর্ট .কম

ঢাকা, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ইং


প্রকাশ : ফেব্রুয়ারি ২, ২০১৯ , ৭:০১ অপরাহ্ণ
রাজাপুরে এমপির বর্ধিত সভা ৭ চেয়ারম্যান মনোনয়ন প্রত্যাশীসহ আ’লীগের একাংশের বর্জণ

রহিম রেজা, ঝালকাঠি //ঝালকাঠির রাজাপুরে উপজেলা আ’লীগের দলীয় উপজেলা চেয়াম্যান প্রার্থী বাছাইয়ের লক্ষে ঝালকাঠি-১ (রাজাপুর-কাঠালিয়া) আসনের এমপি বিএইচ হারুনের বর্ধিত সভায় দলীয় ৭ চেয়ারম্যান মনোনয়ন প্রত্যাশীসহ আ’লীগের একাংশ বর্জন করেছে। জানা গেছে, শনিবার সকাল ১০ টায় উপজেলা অডিটোরিয়ামে জেলা, উপজেলা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড আ’লীগের সভাপতি ও সম্পাদক দিয়ে বর্ধিত সভায় আয়োজন করা হয়। তবে জেলা, উপজেলা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডের অধিকাংশ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলো না বলে জানা গেছে। সভায় উপজেলা আ’লীগের সভাপতি ঝালকাঠি-১ (রাজাপুর-কাঠালিয়া) আসনের এমপি বিএইচ হারুন সভাপতিত্ব করেন।

এসময় বিভিন্ন ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন আ’লীগে একাংশের নেতাকর্মীরা এ বর্ধিত সভায় বক্তব্য রাখেন।

সভায় এমপি বিএইচ হারুন বলেন, তৃনমূলের নেতাকর্মীদের মতামতের ভিত্তিতেই যোগ্য ও জনপ্রিয় ব্যক্তিদের নাম জেলায় পাঠনো হবে। তিনি কারও আ’লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে কারও নাম ঘোষণা না করেই তার বক্তব্য শেষ করে সভাস্থল ত্যাগ করেন।

কিস্তু সভায় বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান উপজেলা আ’লীগের সহ সভাপতি অধ্যক্ষ মনিরউজ্জামান ও উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. খায়রুল আলম সরফরাজ ও জেলা আওয়ামীলীগের বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সঞ্জিব বিশ্বাস ও উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আফরোজা আক্তার লাইজুসহ আ’লীগের ৭ উপজেলা চেয়ারম্যান মনোনয়ন প্রত্যাশী এবং আ’লীগের একাংশের নেতাকর্মীরা সভা বর্জন করেছেন। শুক্তাগড় ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক বাবুল তালুকদার জানান, সঠিক সময়ে মিটিংয়ের কথা না জানানোর কারনে তিনি শুক্রবারে পারিবারিক কাজে পিরোজপুর গিয়েছিলেন।

শনিবারে আসতে দেরী হয়েছে, যখন আসছি তখন দুপুর ১টা বাজে। এসে বর্ধিত সভা পাইনি। শুক্তাগড় ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান মজিবুল হক মৃধা জানান, আমি ব্যক্তিগত কাজে ব্যস্ত থাকায় বর্ধিত সভায় অংশ গ্রহণ করতে পারিনি। বড়ইয়া ইউনিয়ন আ’লীগ সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান শাহ আলম মন্টুও সভায় অংশ নেননি।

উপজেলা মহিলালীগ সভাপতি মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আফরোজা আক্তার লাইজু বলেন, জেলা আওয়ামীলীগ, আমরা রাজাপুর উপজেলার আওয়ামীলীগ, ইউনিয়ন পর্যায়েরসহ ত্যাগী ও পরীক্ষিত কোন নেতৃবৃন্দ বর্ধিত সভায় অংশ গ্রহণ করিনি। যারা একসময়ে জেপি (সাইকেল) থেকে এসে নৌকায় যোগদান করেছেন তারাই ওখানে ছিলো।

উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক অ্যাডভোকেট খায়রুল আলম সরফরাজ বলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের বাছাইয়ের জন্য দলীয় নেতাকর্মী ও আগ্রহী প্রার্থীদের নিয়ে ৫ দিন ধরে একাধিক বৈঠক হয়েছে কিন্তু কোন সিদ্ধান্তে পৌছাতে পারেননি এমপি মহোদয়। পরবর্তীতে রাজাপুরে এসে তিনি কোন নোটিশ ছাড়াই হঠাৎ এ মিটিং ডেকেছেন। আমরা জানতে পারলাম তিনি এক মনোনয়ন প্রত্যার্শীর পক্ষ নিয়েছেন।

এ কারনে আমরা যারা মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলাম স্বাভাবিক কারনেই এ মিটিং এ আর যেতে পারি না।

জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সরদার মোঃ শাহ আলম জানান, আমি এবং সাধারন সম্পাদক অ্যাডভোকেট খান সাইফুল্লাহ পনির রাজাপুরের বর্ধিত সভায় যাবার কথা থাকলেও যেতে পারিনি। ওখানে কি হয়েছে তা জানি না।

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত
[tabs]
এই পাতার আরো খবর