মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ০৫:১৫ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
ইউপি নির্বাচন : বাবুগঞ্জে ৫২ প্রার্থীর মনোনয়ন দাখিল দশমিনায় মা’কে কু-প্রস্তাব দিয়ে শ্লীলতাহানি, বাধা দেয়ায় মা-ছেলেকে কুপিয়ে জখম চন্দ্রদ্বীপ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে ভোটযুদ্ধে রিপন হাওলাদার-মারুফ-চাঁন স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে চিত্রাঙ্কনে বরিশাল বিভাগে প্রথম মোস্তফা দেশে নির্বাচন কমিশন শাক্তিশালী না হলে একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র গঠন করা সম্ভব হবে না-হানিফ বাংলাদেশী। বরিশালে ছাত্র ফেডারেশনের বিক্ষোভ সমাবেশ বেগম জিয়ার সু-চিকিৎসার দাবিতে বরিশালে বিক্ষোভ বরিশালের দুই উপজেলায় ১০ বহিরাগত আটক, একজনের দন্ড বরিশাল বিভাগের বিভিন্ন ভোট কেন্দ্র পরিদর্শনে বিভাগীয় কমিশনার ও রেঞ্জ ডিআইজি বরিশালের রহমতপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ইভিএম দেখে ভোটাররা বিভ্রান্তির পড়ে – যেখানে, সেখানে বাটন চেপেছে রামনাবাদ নদীর ধারে ওড়নায় পেচানো নবজাতকের মরদেহ
মামুনুল হক হোটেলের রেজিস্টারে প্রথম স্ত্রীর নাম লিখেছিলেন !

মামুনুল হক হোটেলের রেজিস্টারে প্রথম স্ত্রীর নাম লিখেছিলেন !

অনলাইন ডেস্কঃ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ের রয়েল রিসোর্টের কক্ষ ভাড়ার সময় হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হক রেজিস্টারে নিজের নাম-ঠিকানা সঠিক লিখলেও তার সঙ্গীনির নাম লুকিয়েছেন। মামুনুল হকের কথিত সেই দ্বিতীয় স্ত্রীর নাম জান্নাত আরা ঝর্ণা হলেও মামুনুল রিসোর্টের নথিতে তার নাম উল্লেখ করেছেন আমেনা তাইয়্যেবা।

জানা গেছে আমেনা তাইয়্যেবা মামুনুল হকের প্রথম স্ত্রীর নাম। তিনি চার সন্তানের জননী।
নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘আমরা শুনতে পেরেছি তার (মামুনুল) আসল স্ত্রীর নাম আমেনা তাইয়্যেবা। বিষয়টির তদন্ত করছি। ’

শনিবার (০৩ এপ্রিল) দুপুর দুইটার দিকে সাদা রঙের একটি গাড়ি নিজেই চালিয়ে রিসোর্টটিতে যান মামুনুল। ভাড়া করেন এক্সিকিউটিভ ডিলাক্স (সেমি সুইট) কক্ষ। এই কক্ষগুলোর ভাড়া এমনিতে ১০ হাজার টাকা। সঙ্গে ১৫ শতাংশ ভ্যাট আর ১০ শতাংশ সার্ভিস চার্জ যুক্ত হয়। তবে রিসোর্ট কর্তৃপক্ষ ডিসকাউন্ট করে মামুনুল হককে সাত হাজার টাকায় ভাড়া দেয়।


রিসোর্টের ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ বকুল বলেন, অভ্যর্থনার কর্মীরা মামুনুলের কাছে তার সঙ্গীনির পরিচয় জানতে চাইলে তিনি বলেছেন তার স্ত্রী, নাম আমেনা তাইয়্যেবা। মামুনুল কক্ষ ভাড়া করার সময় নিজের জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপিও জমা দেন। হেফাজত নেতা ১২ ঘণ্টার জন্য ভাড়া করেন ৫০১ নম্বর কক্ষটি। সেখানে এক ঘণ্টা অবস্থানের পর মামুনুল খাবারের অর্ডার করেন। এরপর সাড়ে পাঁচটার দিকে শুরু হয় হাঙ্গামা।

স্থানীয় যুবকরা মামুনুলকে ঘিরে যখন একের পর এক প্রশ্ন করতে থাকেন তখন তিনি ওই নারীর পরিচয় দেন আমেনা তাইয়্যেবা। বলেন তার শ্বশুরবাড়ি খুলনায়, শ্বশুরের নাম জাহিদুল ইসলাম। তবে তার এই বক্তব্যের সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠে সেই মেয়ের বক্তব্যে। তিনি নিজের নাম বলেন জান্নাত আরা ঝর্ণা। বাবার নাম লেখেন ওলিয়র রহমান। বাড়ি ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গায়।

উল্লেখ্য, শনিবার বিকেলে রাজধানীর অদূরে সোনারগাঁয়ের একটি রিসোর্টে হেফাজত নেতা মামুনুল হক একজন নারীসহ অবস্থান করছেন এমন খবর পেয়ে স্থানীয় কিছু লোকজন, ছাত্রলীগ-যুবলীগের নেতা-কর্মীরা তার কক্ষটি ঘেরাও করেন। যদিও মামুনুল হক সঙ্গে থাকা নারীকে তার দ্বিতীয় স্ত্রী বলে দাবি করেন। পরে সন্ধ্যা সোয়া সাতটার দিকে হেফাজতের একদল নেতাকর্মী, মাদ্রাসাছাত্র মিছিল নিয়ে এসে রয়েল রিসোর্ট নামের ওই অবকাশযাপন কেন্দ্রটিতে ভাঙচুর চালিয়ে মামুনুলকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

সূত্রঃ বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

Please Share This Post in Your Social Media




পুরাতন খবর

DEVELOP BY SJ WEB HOST BD
Design By Rana