শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:৪২ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
কলাপাড়ায় বিদ্যুতের খুঁটি স্থাপনকে কেন্দ্র করে রোজাদার ব্যাক্তির হাত ভেঙ্গে দিলো সন্ত্রাসীরা।

কলাপাড়ায় বিদ্যুতের খুঁটি স্থাপনকে কেন্দ্র করে রোজাদার ব্যাক্তির হাত ভেঙ্গে দিলো সন্ত্রাসীরা।

জাকারিয়া জাহিদ ,কুয়াকাটা(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি ঃ কলাপাড়ায় নিজ সীমানায় বিদ্যুতের খুঁটি স্থাপন করতে বাঁধা দেয়ায় লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে গিয়াস উদ্দিন নামের এক ব্যাক্তির হাত ভেঙ্গে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। শনিবার শেষ বিকেলে নীলগঞ্জ ইউপির মজিদপুর গ্রামে বাক বিতন্ডার এক পর্যায় ওই বৃদ্ধের ওপর হামলা চালায় প্রতিপক্ষরা। এসময় তাকে বঁাচাতে এগিয়ে এলে বৃদ্ধের নিকটাত্বীয় মজিবর রহমানকে (৪৮) পিটিয়ে যখম করে বলে অভিযোগ আহতদের। এঘটনায় আহতদের রক্তাক্ত অবস্থায় স্থানীয়রা উদ্ধার করে কলাপাড়া হাসপাতালে নিয়ে এলে গুরতর আহত গিয়াস উদ্দিনকে দ্রুত বরিশাল শেবাচিমে প্রেরণ করা হয়েছে। এছাড়া মজিবর রহমানকে কলাপাড়া হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

 

আহতদের স্বজনরা অভিযোগ করে এ প্রতিবেদককে বলেন, গিয়াস উদ্দিনের কৃষি জমির মধ্যে দিয়ে বিদ্যুতের খুঁটি স্থাপনের চেষ্টা করে প্রতিবেশি বজলু মেকারের পুত্র মাহাবুব (৪০), শানু (৪৪) তার নাতি সাইফুল (১৮)। এসময় কৃষি জমির সীমানার পাশ দিয়ে খুঁটি স্থাপনের জন্য জানালে উভয় পক্ষ বাকতিন্ডায় জড়ালে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে বজলু ও তার ছেলেরা। এক পর্যায় লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে রোজাদার গিয়াস উদ্দিনকে পিটিয়ে হাত ভেঙ্গে দেয়।

 

এবিষয়ে অভিযুক্তদের সাথে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তা সম্ভব হয়নি।

 

নীলগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট নাসীর উদ্দিম মাহমুদ সাংবাদিকদের বলেন, বিদ্যুতের খুঁটি নিয়ে দুই পক্ষে দীর্ঘদিন যাবৎ ঝগড়া-বিবাদ চলছিলো। গিয়াস উদ্দিনকে এভাবে মরধর করা হবে এটা অন্যায় এবং দু:খজনক। তাকে উন্নত চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

কলাপাড়া থনার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান গনমাধ্যমকে বলেন, ঘটনা শুনে দ্রুত পুলিশ পাঠানো হয়েছে। অপরাধী ও সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। তবে লিখিত অভিযোগ পেলে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Please Share This Post in Your Social Media




পুরাতন খবর

DEVELOP BY SJ WEB HOST BD
Design By Rana