মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ০১:১১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
কলাপাড়ায় ২০ মন অবৈধ হাঙ্গর আইনী প্রক্রিয়ায় জব্দ না করায়,বন কর্মকর্তাকে স্বশরীরে ব্যাখ্যা প্রদানের নির্দেশ  দশমিনায় বাল্যবিবাহের দায়ে কনের বাবা, বর, কাজী আটক, অতঃপর কারাদণ্ড বরিশালে বেগম খালেদা জিয়ার আশু রোগ-মুক্তি কামনায় দোয়া-মোনাজাত অনুষ্ঠিত বাউফলে বৃদ্ধ বাবার হাত ভেঙে দিল ছেলে  কলাপাড়ায় গভীর রাতে রাস্তার গাছ কেঁটে নেয়ার অভিযোগ। “অপরাধ মুক্ত সমাজ গরতে কাজ করতে চাই “: ডিসি মনজুর রহমান বরিশালের গণমাধ্যম অফিসে কর্মরত অফিস সহায়কদের মাঝে আবিস্কারের পক্ষ থেকে ঈদ সামগ্রী প্রদান নগরীতে শিক্ষার্থীদের তিন দফা দাবী আদায়ে ছাত্রফ্রন্টের মানববন্ধন বরিশালে বজ্রপাতে নিহত ১ দেশব্যাপী করোনা পরিস্থিতি বরিশাল অসহায় দুঃস্থ মানুষদের পাশে শেখ হাসিনা সেনানিবাস এর সেনারা।
মানবতার সেবায় উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন বরিশালের জেলা প্রশাসক

মানবতার সেবায় উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন বরিশালের জেলা প্রশাসক

বরিশাল রিপোর্ট ডেস্কঃ করোনা ভাইরাসে সারা দেশ যখন লকডাউনে  কাতরাচ্ছে ছিন্নমূল ও অসহায় মানুষ মানবতার সাথে জীবন জাপন করছে। এই কঠিন সময়ে ছিন্নমূল ও অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে মহামারি করোনাকালে মানবতার সেবায় উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন  করলেন বরিশাল জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার।

শত কর্মব্যস্তার মানুষ হলেও চলমান সংকটাবস্থায় অসহায়দের পাশে দাঁড়াতে ভুলেননি তিনি।

গত রোববার রাতে বরিশাল নদীবন্দরে খাবরের জন্য অপেক্ষ মান ৩০০ জন অসহায় মানুষককে নিজ হাতে খাবারের প্যাকেট তুলে দেন তিনি। তার এই মহান আচারন এক নগরবাসীর কাছে প্রশংসায় জন্ম নিয়েছে।

সমাজের সামর্থ্যবান ব্যক্তিরা হতদরিদ্রদের পাশে দাঁড়াবেন-এমন প্রত্যাশা জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দিন হায়দারের। এদিকে করোনা ভাইরাসের এই দুর্যোগে ডিসির হাতে খাবারের প্যাকেট পেয়ে খুশি আবদুল খালে মিয়া।

তিনি বলেন, ভিক্ষা করতাম। করোনার এই কঠিন সময় মানুষেররা ভিক্ষা দেয়া না। ভাত খামু কেমনে।

শোনলাম লঞ্চঘাটে প্রতিদিন রাতে সাংবাদিকরা খাবার দেন। ডিসি স্যার ও খাবার দিছেন। দোয়া করি আল্লাহ্ ওনাগো সবাইকে বাঁচিয়ে রাখেন।

ওনরা যেন আমাগো মতো গরীবদের পাশে সবসময় থাকতে পারেন । নগরীর রুপাতলী এলাকার বাসিন্দা অবসার প্রাপ্ত সরকারি কর্মকর্তা মোঃ মোতালেব হোসেনের সাথে আলাপ করা হয় ।

তিনি বলেন, বরিশাল গণমাধ্যমকর্মীদের এ উদ্যোগ খুবই প্রশংসনীয়। তাদের সাথে ডিসির অসহায়দের সহযোগিতায় এগিয়ে আসা এক প্রকার মানবিকতার অনন্য উদাহরণ।

 

আমরা সবাই এ রকম ভাসমানদের পাশে দাঁড়ালে অসহায়দের দুংখ থাকবেনা । অসহায়দের পাশে দাঁড়ানোর অনুভূতি বিষয় জানতে চাইলে জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার বলেন, এক অসাধরণ অনুভূতি হয়েছে ।

স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীদের ছিন্নমূল মানুষের পাশে থাকা আসলেই প্রশংসা পাওয়ার যোগ্য । আমিও নিজেকে আটকে রাখতে পারলাম না।

 

আমরা যদি সবাই মিলে ওই মানুষগুলোর পাশে দাঁড়াই তাহলে রাস্তায় কেউ ইনশাল্লাহ না খেয়ে থাকবে না। ভালো কাজের পাশে সবসময়ই পাশে থাকবে বরিশাল জেলা প্রশাসন ।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে গরীব অসহায় মানুষের প্রতি বরিশাল জেলা প্রশাসনের ত্রান কার্যক্রম করোনা যত দিন থাকেবে ততদিন চলবে।

প্রসঙ্গত, গত বছর করোনায় লকডাউন শুরু হলে ২৮ মার্চ বরিশাল প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি, সাবেক সাধারণ সম্পাদক কাংলাদেশ সম্পাদক বরিশালের সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসেন গণমাধ্যমকর্মীদের স্বেচ্ছাসেবী প্লাটফর্ম কার্য্যক্রম শুরূ করেন।

এ লক্ষে বরিশাল নদীবন্দরে করোনায় কর্মহীন ও অসহায় মানুষের পাশে খাবার নিয়ে সহযোগিতার হাত বাড়ান গণমাধ্যমকর্মীরা।

দুই শতাধিক ছিন্নমুল শিশু ও অসহায়দের খাবারের ব্যবস্থা করেন তারা। এ বারের করোনায় লকডাউনে একই স্থানে ২০ এপ্রিল মঙ্গলবার ছিন্নমুল শিশু ও অসহায়দের খাবারের কর্মসূচির আয়োজন করে গণমাধ্যমকর্মীদের স্বেচ্ছাসেবী প্লাটফর্ম।

বরিশাল সিটি করর্পোরেশনের মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ ওই কর্মসূচির ভার্চুয়ালী উদ্বোধন করেন ।

এ কর্মসূচির সাথে একাত্না প্রকাশ করেন বরিশাল জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দিন হায়দার । এর ন্যায় ২৫ এপ্রিল সামাজিক সংগঠনের প্রধান পৃষ্ঠপোষক এসএম জাকির হোসেন ও সাইফুর রহমান মিরণের হাতে ছিন্নমূল মানুষের খাদ্য সহায়তার জন্য অর্থ প্রদান করে রাতেই নদীবন্দরে ৩০০ জন অসহায় মানুষককে নিজ হাতে খাবারের প্যাকেট তুলে দেন জেলা প্রশাসক ।

Please Share This Post in Your Social Media




পুরাতন খবর

DEVELOP BY SJ WEB HOST BD
Design By Rana