শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:০৪ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বরিশালে সড়ক দুর্ঘটনায় ঝড়ে গেলো  তিন শিক্ষার্থীর প্রাণ আইপিডিজি ডিস্ট্রিক গভর্নরকে  ফুলেল শুভেচ্ছা জানান রোটারি ক্লাব অব বরিশালের সভাপতি পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় অবৈধ ভাবে মাটি কাটার দায়ে ৩ লাখ টাকা জরিমানা। কলাপাড়ায় সার সরবরাহে সঙ্কট,দিশেহারা কৃষকসহ ডিলাররা। মহান শিক্ষা দিবস উপলক্ষে বরিশালে ছাত্র সমাবেশ বরিশালে কলেজছাত্র হত্যা মামলায় ২ আসামিকে ফাঁসি, ৪ জনের যাবজ্জীবন র্কীতনখোলা নদীর তীরের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ পায়রা সেতু দক্ষিনাঞ্চলে মানুষের জন্য আরেকটি পদ্মা সেতুর মতো-ওবায়দুল কাদের বরিশালে শেবাচিমে ডিজিও বিভাগ চালু মেহেন্দীগঞ্জে ছেলের হাতে আটক বৃদ্ধা মাকে উদ্ধারে ব্যর্থ জনপ্রতিনিধি
ভয়াবহ শোকের মাস- ফিরোজ আলম

ভয়াবহ শোকের মাস- ফিরোজ আলম

এম.জাফরান হারুন, নিজস্ব প্রতিনিধি, পটুয়াখালী: চলছে ভয়াবহ শোকের মাস, আগষ্ট মাস! ১৫ ই আগষ্ট আমরা হারিয়েছি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ তার পরিবার বর্গকে কিন্তুু বর্তমান প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা ও তার ছোট বোন শেখ রেহেনা বিদেশের মাটিতে ছিল বিধায় প্রানে বেঁচে যান।

বর্তমান প্রধানমন্ত্রীকে বার বার হত্যা চেষ্টা চালান স্বাধীনতা বিরোধী কিছু কুচক্রী মহল, ২১শে আগষ্ট বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে
ভয়াবহ বর্ববরতায় মমতাময়ী প্রধানমন্ত্রী প্রানপনে বেঁচে যান!

আমরা হারিয়েছি আইভি রহমানসহ আরও অনেক নেতাকর্মীকে কিছু নেতাকর্মী পঙ্গুত্ব বরন করে এখনো বেচেঁ আছেন!
আমিও সেদিন বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের সমাবেশে ছিলাম দেখলাম –ধুয়োর কুন্ডলী, বিকট শব্দ, নেতাকর্মীদের চিৎকার আর্তনাদ যে যার মতো দৌড়ে জীবন বাঁচান কিন্তুু সেদিন কিছু নেতাকর্মীদের ধাক্কায় আমার দুই হাতের কনুইতে ব্যথা পেয়েছি আর পায়ের জুতা রেখে এসেছি ঐ সমাবেশস্তলে,
বায়তুল মোকাররম মসজিদের দক্ষিণ গেঁটে এসে দেখি আমার পায়ের জুতা নেই।

এরপর খালি পায়ে বাসায় রিকশা নিয়ে রওয়ানা দেই। পকেট থেকে মোবাইল বাহির করে রিং দিবো বাসায় তাও দেখি নেটওয়ার্ক বন্ধ সে দিন কি ভয়াবহ ছিল আজও মনে পরে।

এরপর ঢাকা অবরোধেও ঢাকার রাজপথে সচিবালয়ের পূর্ব পাশে জিরো পয়েন্টে
প্রতিদিনই নিজ পকেটের পয়সা খরচ করে নৌকার ভক্তদের নিয়ে যেতাম!
সেখানে নানক ভাই, মির্জা আজম ভাই,
ডা. দিপু মনি, হাসানুল হক ইনু, কাঙ্গালীনি সূফিয়াসহ গোড়ান, মাদারটেক, বাসাবো, খিলগাঁও থেকে সাবের ভাই এর নেতাকর্মিরা উপস্থিত হতো এবং সাইদ খোকন ও মনু কমিশনারের নেতাকর্মীরা প্রতিদিনই জরো হতো। আমাদের টার্গেট প্রতিজ্ঞা ছিল বিএনপি জামাতের পতন না হওয়া পর্যন্ত আমরা রাজপথ ছাড়বো না।

আমরা তাকিয়ে আছি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সরকারের কাছে। একটাই দাবি- “যাঁরা ২১শে আগষ্ট নারকীয় জগন্যতম হত্যাকান্ড চালিয়েছে এবং যাঁরা মদত দ্বাতা রাষ্ট্রের কাছে বিচার চাই। আর
প্রকৃত রাজপথের আওয়ামী লীগ কর্মিরা যেন হারিয়ে না যায়”।

১৫ ই আগষ্ট ও ২১শে আগষ্ট যারা শহীদ হয়েছেন তাদের জন্য বিনম্র শ্রদ্ধা রইলো।

ব্যবসায়ী ফিরোজ আলম, সদস্য, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, বাউফল পৌরসভা, বাউফল, পটুয়াখালী ও সাংগঠনিক সম্পাদক, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, ২নং ওয়ার্ড, বাউফল পৌরসভা, বাউফল, পটুয়াখালী।

Please Share This Post in Your Social Media




পুরাতন খবর

DEVELOP BY SJ WEB HOST BD
Design By Rana