শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:০০ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বরিশালে সড়ক দুর্ঘটনায় ঝড়ে গেলো  তিন শিক্ষার্থীর প্রাণ আইপিডিজি ডিস্ট্রিক গভর্নরকে  ফুলেল শুভেচ্ছা জানান রোটারি ক্লাব অব বরিশালের সভাপতি পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় অবৈধ ভাবে মাটি কাটার দায়ে ৩ লাখ টাকা জরিমানা। কলাপাড়ায় সার সরবরাহে সঙ্কট,দিশেহারা কৃষকসহ ডিলাররা। মহান শিক্ষা দিবস উপলক্ষে বরিশালে ছাত্র সমাবেশ বরিশালে কলেজছাত্র হত্যা মামলায় ২ আসামিকে ফাঁসি, ৪ জনের যাবজ্জীবন র্কীতনখোলা নদীর তীরের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ পায়রা সেতু দক্ষিনাঞ্চলে মানুষের জন্য আরেকটি পদ্মা সেতুর মতো-ওবায়দুল কাদের বরিশালে শেবাচিমে ডিজিও বিভাগ চালু মেহেন্দীগঞ্জে ছেলের হাতে আটক বৃদ্ধা মাকে উদ্ধারে ব্যর্থ জনপ্রতিনিধি
সেই আলোচিত কিশোরী পুলিশি প্রটোকলে চলছে জীবন নসিমন সুন্দরীর

সেই আলোচিত কিশোরী পুলিশি প্রটোকলে চলছে জীবন নসিমন সুন্দরীর

এম.জাফরান হারুন, নিজস্ব প্রতিনিধি, পটুয়াখালী: পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার কনকদিয়া ইউনিয়নের সেই আলোচিত কিশোরী নাজমিন আক্তার নসিমন সুন্দরীর জীবন চলছে এখন পুলিশি নিরাপত্তা পাহারায়। ঘরের বাইরে বের হলে বা তদন্তের খাতিরে কোথায়ও গেলে তাকে পুলিশি প্রটোকলের মাধ্যমে নিয়ে যাওয়া হয় সেখানে। কারন স্থানীয় অনেকেই ধারণা করছেন এই নসিমন সুন্দরীর নিরাপত্তায় পুলিশি পাহারা না থাকলে হয়তো নসিমন ও নসিমন পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভুগতো। হয়তো তাদের ওপর অমাবশ্যার অন্ধকারও নেমে আসতে পারতো। পুলিশি পাহারা থাকায় নসিমন ও নসিমন পরিবার যেরকম নিরাপত্তা চাদরে ঢাকা তেমনি এলাকার মানুষও স্বস্তি পাচ্ছে।

উপরে পুলিশি প্রটোকলে নসিমন সুন্দরী। তদন্তের খাতিরে বৃহস্পতিবার (১২ আগষ্ট-২০২১ ইং) বেলা ১১টার দিকে নসিমন সুন্দরীকে তার বাড়ি কনকদিয়া থেকে পুলিশি প্রটোকল দিয়ে বাউফল সাব-রেজিষ্ট্রি কার্যালয়ে সাব-রেজিষ্ট্রি কর্মকর্তার কাছে নিয়ে আসা হয় আবার দুপুর দেড়টার দিকে তাকে পুলিশি প্রটোকল দিয়ে কনকদিয়া বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়।

দেখা যায়, বাউফল থানার এএসআই কামাল আহমেদ, একজন পুলিশ কনষ্টেবল ও দুইজন নারী পুলিশ সদস্য নসিমন সুন্দরীর নিরাপত্তা প্রটোকলে রয়েছেন।

এসময় এএসআই কামাল আহমেদ জানান, নসিমনের বিয়ে এবং জন্ম নিবন্ধনের বিষয়গুলোর তদন্ত চলছে। তাই আমরা নসিমনের নিরাপত্তা স্বার্থে তাকে প্রটোকল দিচ্ছি।

গত শুক্রবার (২৫ জুন) উপজেলার কনকদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে রমজান – নসিমন প্রেম সম্পর্কের সালিশী করতে গিয়ে বৈঠকে প্রেমিকা কিশোরী নাজমিন আক্তার নসিমন সুন্দরীকে পছন্দ হওয়ায় বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে বিয়ে করেন চেয়ারম্যান শাহিন হাওলাদার। এঘটনা নিয়ে বিভিন্ন প্রিন্ট ও অনলাইন পত্রিকায় খবর প্রকাশ হলে ততক্ষনাত ভাইরাল হয়ে ব্যাপক সমালোচনার মধ্যে পড়ে যান চেয়ারম্যান শাহীন হাওলাদার। নিজের মানসম্মান বাচাতে পরদিন শনিবার আবার ওই নসিমনকে দিয়ে তালাক দেন। তাও দ্রুত পত্র পত্রিকায় খবর প্রকাশ পেলে আলোচিত চেয়ারম্যান বনে যান। এবং গণমাধ্যমে এ খবর গুলো আমলে নিয়ে রোববার (২৭ জুন) হাইকোর্টের বিচারপতি ফারাহ মাহবুবের নেতৃত্বাধীন দ্বৈত বেঞ্চ বিয়ের ঘটনা তদন্তের জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) কে নির্দেশ দেন একই সঙ্গে ক্ষমতার অপব্যবহার কেন কর্তৃত্ববহির্ভূত হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন। সেই থেকে আদালতের নির্দেশক্রমে ও পটুয়াখালী জেলা পুলিশ সুপারের নির্দেশে নসিমনের নিরাপত্তা ও তার পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তাকে মাথায় রেখে নসিমন সুন্দরীকে প্রটোকল ও পরিবারবর্গকে নিরাপত্তায় পুলিশি পাহারা চলছে।

নসিমন সুন্দরীর বাবা বলেন, পুলিশ যদি আমাদের নিরাপত্তা স্বার্থে ও নসিমনকে প্রটোকল না দিত তাহলে হয়তো ওই শাহীন চেয়ারম্যানের কড়াল গ্রাসে আমাদের সব হারাতে হতো নইলে এলাকার ছেড়ে চলে যেতে হতো।###

Please Share This Post in Your Social Media




পুরাতন খবর

DEVELOP BY SJ WEB HOST BD
Design By Rana