শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:১৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বরিশালে সড়ক দুর্ঘটনায় ঝড়ে গেলো  তিন শিক্ষার্থীর প্রাণ আইপিডিজি ডিস্ট্রিক গভর্নরকে  ফুলেল শুভেচ্ছা জানান রোটারি ক্লাব অব বরিশালের সভাপতি পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় অবৈধ ভাবে মাটি কাটার দায়ে ৩ লাখ টাকা জরিমানা। কলাপাড়ায় সার সরবরাহে সঙ্কট,দিশেহারা কৃষকসহ ডিলাররা। মহান শিক্ষা দিবস উপলক্ষে বরিশালে ছাত্র সমাবেশ বরিশালে কলেজছাত্র হত্যা মামলায় ২ আসামিকে ফাঁসি, ৪ জনের যাবজ্জীবন র্কীতনখোলা নদীর তীরের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ পায়রা সেতু দক্ষিনাঞ্চলে মানুষের জন্য আরেকটি পদ্মা সেতুর মতো-ওবায়দুল কাদের বরিশালে শেবাচিমে ডিজিও বিভাগ চালু মেহেন্দীগঞ্জে ছেলের হাতে আটক বৃদ্ধা মাকে উদ্ধারে ব্যর্থ জনপ্রতিনিধি
হঠাৎ শেবাচিমে ১০০টি অক্সিজেন সিলিন্ডার উধাও

হঠাৎ শেবাচিমে ১০০টি অক্সিজেন সিলিন্ডার উধাও

বরিশাল রিপোর্ট ডেস্কঃ হঠাৎ করে উধাও  ১০০ অক্সিজেন সিলিন্ডার ও ৩০টি সিলিন্ডার মিটারের সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বিষয়টি গোপন রাখার চেষ্টা করলেও শনিবার (২১ আগস্ট) বিকেলে ফাঁস হয়ে যায়।

প্রশাসনিক শাখা সূত্রে জানা গেছে, ঘটনা তদন্তে হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. মনিরুজ্জামানকে প্রধান করে পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- সহকারী পরিচালক ডা. মো. নাজমুল হোসেন, ডা. মাহমুদ হোসেন, স্টোর অফিসার অনামিকা ও সেবা তত্ত্বাবধায়ক সেলিনা আক্তার।

তবে গত সাত দিনে হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ডে অনুসন্ধান চালিয়েও কেউই সন্ধান মেলাতে পারেনি সিলিন্ডারগুলোর।

হাসপাতালের স্টোর সূত্রে জানা যায়, হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে মাস্টারদের মাধ্যমে অক্সিজেন সিলিন্ডার ও মিটার সরবরাহ করা হয়। কোন ওয়ার্ডে কতটি অক্সিজেন সিলিন্ডার ও সিলিন্ডার মিটার নেওয়া হয়েছে তার তালিকা করা হয়েছে। ওই তালিকা অনুযায়ী বিভিন্ন ওয়ার্ড তল্লাশি করে অন্তত ১০০ সিলিন্ডার ও ৩০টি মিটারের হদিস পাওয়া যায়নি। পরে বিষয়টি পরিচালককে অবহিত করা হলে তিনি একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে দেন।

তদন্ত কমিটির সদস্য সেবা তত্ত্বাবধায়ক সেলিনা আক্তার বলেন, প্রতিটি ওয়ার্ডে অক্সিজেন সিলিন্ডার ও মিটারের সন্ধান চালানো হচ্ছে। কিন্তু সন্ধ্যা পর্যন্ত উধাও হওয়া সিলিন্ডার ও মিটারের সন্ধান মেলেনি। এজন্য একজনকে কারণ দর্শানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

হাসপাতালের পরিচালক ডা. এ ইচ এম সাইফুল ইসলাম বলেন, অক্সিজেন সিলিন্ডার ও মিটার উধাও হওয়ার খবর পেয়ে বিষয়টি খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি গঠিত হয়েছে। কমিটির রিপোর্ট পাওয়ার পর অবহেলার জন্য দায়ী সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সরকারিভাবে সরবরাহ করা ও বিভিন্ন ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানের অনুদান পাওয়া সিলিন্ডারসহ শেবাচিম হাসপাতালে ৬২৮টি অক্সিজেন সিলিন্ডার রয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media




পুরাতন খবর

DEVELOP BY SJ WEB HOST BD
Design By Rana